রবিবার, ২৫ Jul ২০২১, ১১:৪০ পূর্বাহ্ন

নোটিশ
আমাদের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম.........
শিরোনাম >>>
বিএনপির দুস্থ নেতাকর্মী, এতিমখানা ও নব মুসলিমকে মাংস প্রদান বেগম খালেদা জিয়ার সুস্থ্যতা কামনা করে গাবতলীর উজগ্রামে দোয়া মাহফিল ১১০টি পরিবারের মুখে হাসি ফুটালেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মওদুদ আহম্মেদ জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা’র সাবেক মহাসচিব সাজ্জাদুল কবির মারা গেছেন নেতৃবৃন্দ’র শোক গাবতলীর মহিষাবান ইউনিয়ন পরিষদে ভিজিএফ’র চাল বিতরণ জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা’র জেলা সদস্য বাবু’র পিতার মৃত্যুতে নেতৃবৃন্দ’র শোক সোনাতলায় দিনদিন বেরেই চলেছে চোরের উপদ্রব-কৌশলে আবারো ইজিবাইক চুড়ি নন্দীগ্রামে নিজস্ব অর্থায়নে অসহায়দের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করলেন এম পি মোশারফ হোসেন কালাই ইউনিয়ন পরিষদে ভিজিএফের চাল বিতরণ করলেন ইউ পি চেয়ারম্যান হান্নান

আগামী নবগঠিত সুখানপুকুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার মাঝি হতে চায় লতিফুল বারী মিন্টু

আগামী নবগঠিত সুখানপুকুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার মাঝি হতে চায় লতিফুল বারী মিন্টু

এম.এ রায়হান কবির,বার্তাকক্ষঃ আগামী নবগঠিত সুখানপুকুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার মাঝি হতে চায় গাবতলী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও

বর্তমান নেপালতলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এস এম লতিফুল বারী মিন্টু।

প্রার্থী হিসেবে গাবতলী উপজেলা নবগঠিত সুখানপুকুর ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে আলোচনার শীর্ষে এই আওয়ামীলীগ নেতা ।

নবগঠিত ইউনিয়ন পরিষদ হলেও নির্বাচনী মাঠে তিনি সবার পরিচিত মানুষ। এলাকার যে কোন মানুষ সমস্যায় পড়লে ছুটে যান তিনি। ইউনিয়নের সকল বয়সী ও শ্রেণি পেশার মানুষের পরিচিত ও আপনজন মিন্টু আবারও নৌকার মাঝি হতে চায়।

মানুষের বিপদে ঘরে বসে থাকতে পারেন না তিনি, ছুটে যান বিপদগ্রস্থ মানুষের পাশে। বিয়েসাদী,অভাবী,কাজহীন মানুষকে কাজ দেয়া, যুব সমাজকে আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিত, মাদকমুক্ত ও ক্রীড়ামোদী করে গড়ে তোলা, এলাকার উন্নয়নে অংশগ্রহণ করা।

তাই সমাজের সার্বিক উন্নয়ন করতে আবারও নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী এস এম লতিফুল বারী মিন্টু। এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়ে আবারও মাঠে থাকতে চান।

মিন্টু আবারও চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হলে সকল কর্মকান্ডে জনগনের অংশগ্রহন ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করাসহ আধুনিক ইউনিয়ন গঠন করতে চান। একইসাথে মাদক,সন্ত্রাস ও দুর্ণীতি প্রতিরোধসহ জনসচেতনতামূলক কর্মসুচি গ্রহন করতে চান তিনি।
এলাকার বিভিন্ন বয়সের মানুষের সাথে কথা বলে জানা যায়,দক্ষ সংগঠক ও বলিষ্ঠ নেতৃত্বের কারনে তারা আবারও মিন্টু কে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করতে চান। সুখানপুকুর ইউনিয়নের উন্নয়নের জন্য তার বিকল্প নাই। ইতিমধ্যে ইউনিয়নের যুবসমাজ,ছাত্রসমাজ সহ সাধারণ জনগণ আবারও দক্ষ সংগঠক মিন্টু’র পক্ষে সকলকে ঐক্যবদ্ধ করতে মাঠে নেমেছেন।

শুধু যুব সমাজ নয়,ছাত্র শিক্ষক,শ্রমিক জনতা, বৃদ্ধবণিতাসহ সকল শ্রেণি-পেশার মানুষ আবারও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মিন্টুকে নৌকার মাঝি হিসেবে চায়।

নির্বাচনে অংশগ্রহন প্রসঙ্গে এস এম লতিফুল বারী মিন্টু বলেন, আমি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের সংগঠন,দেশরত্ন শেখ হাসিনার প্রিয় সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। সারাদেশের মধ্যে উন্নয়নের রোল মডেল হবে নবগঠিত সুখানপুকুর ইউনিয়ন।সন্ত্রাস,দূর্নীতি মাদক মুক্ত মডেল ইউনিয়ন হবে সুখানপুকুর। আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি সম্পন্ন ডিজিটাল ইউনিয়ন গঠনসহ সকল কর্মকান্ডে জনগনের অংশগ্রহন ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা আমার লক্ষ্য।

সৎ যোগ্য ও অন্যায়ের বিরুদ্ধে সর্বদা সোচ্চার মিন্টু আরো বলেন,দল আমাকে আবারও নৌকা প্রতীক দিলে অবশ্যই আমি নবগঠিত সুখানপুকুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবো। আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে অত্র ইউনিয়নে উন্নয়নের নব দিগন্ত সৃষ্টি হবে বলে প্রত্যাশা করছেন ইউনিয়নের বিভিন্নস্তরের মানুষ। সুখানপুকুর ইউনিয়নকে একটি মডেল ইউনিয়নে পরিণত করতে চাই,সেইসাথে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে সহযোগী হতে চাই।
দল আমাকে নৌকা প্রতীক দিলে ইনশাআল্লাহ আমি অবশ্যই নির্বাচন অংশগ্রহণ করবো এবং আবারও বিজয়ী হবো।

তাই আগামী নবগঠিত সুখানপুকুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমি নৌকার মাঝি হতে চাই।

শেয়ারকরুন: