রবিবার, ১৩ Jun ২০২১, ০৫:০৫ পূর্বাহ্ন

নোটিশ
আমাদের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম.........
শিরোনাম >>>
গাবতলীর নশিপুর ইউনিয়ন আ’লীগের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু-বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্ণামেন্টের উদ্বোধন গাবতলীতে ১২বছর যাবৎ ঈদগা মাঠে’র হিসাব না দেয়ায় প্রতিবাদ সভা নিজের স্ত্রী নিয়ে পালিয়ে যাওয়ায পরকীয়া প্রেমিকের স্ত্রীকে খুন বাবা-মায়ের সঙ্গে অভিমান করে স্মার্টফোন কিনে না দেয়ায় কিশোরের আত্মহত্যা মাদক থেকে যুব সমাজকে দূরে রাখতে ক্রীড়াচর্চার বিকল্প নেই — রাজিবুল করিম রাফি কাহালুতে বিষ প্রয়োগ প্রায় ২৪ লাখ টাকার মাছ নিধন থানায় লিখিত অভিযোগ গাবতলীতে আজম খানের রুহের ও করোনায় আক্রান্ত রবিন খানের পরিবারের সুস্থ্যতা কামনা করে দোয়া মাহফিল মানুষ খুন করে কখনো বেহেশত পাওয়া না ঃ এ্যাড.লীটন আদমদীঘিতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ গাবতলী উপজেলা চেয়ারম্যানের শাশুরী গুরুত্বর অসুস্থ ঢাকায় ভর্তি

গাবতলীতে পরাজিত কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের হামলা ২ জন আহত ১০ বসতবাড়ি ও দোকান ভাংচুর

গাবতলীতে পরাজিত কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের হামলা ২ জন আহত ১০ বসতবাড়ি ও দোকান ভাংচুর

মোঃ আমিনুর ইসলামঃ বগুড়ার গাবতলীতে পৌরসভা নির্বাচনে, পরাজিত কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের হামলায় ২ ব্যাক্তি গুরুতর আহত ও ১০ বসতবাড়ি ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করায় সেখানে পুলিশ টহল বাড়ানো হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ৩১ জানুয়ারী রবিবার দুপুর দেড়টায় গাবতলী পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের তরফমেরু এলাকায়। এলাবাসী সুত্রে জানাগেছে, ৩০ জানুয়ারী গাবতলী পৌরসভার সাধারন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৭ নং ওয়ার্ড থেকে গোলাম রব্বানী রতন (উটপাখি) প্রতিক ও সোহেল রানা (ব্লাকবোর্ড) প্রতিক নিয়ে ২ জন প্রার্থী কাউন্সিলর নির্বাচন করেন। নির্বাচনে সোহেল রানা পরাজিত হয়। ভোটের পরদিন ৩১ জানুয়ারী রোববার বিজয়ী প্রার্থী গোলাম রব্বানীর কর্মী রাসেল স্থানীয় একটি এলাকায় নারকেলের সোফা কিনতে গেলে পরাজিত প্রার্থী সোহেল রানার কর্মীরা সমর্থকরা তাকে মারপিট করে। এ সংবাদ গোলাম রব্বানীর কর্মী সমর্থকরা জানতে পেরে সবুজ ও রানা ঘটনার স্থলে ছুটে যায়। সেখানে পরাজিত কাউন্সির প্রার্থী সোহেল রানার কর্মী সমর্থকরা তাদেরকে লাঠিসোটাসহ রামদা দিয়ে এলাপাথারী মারপিট করে। এসময় রামদার আঘাতে পিঠে আঘাত প্রাপ্ত হয়ে বিশার ছেলে সবুজ মিয়া ও হাটু ও অন্ডকোষে আঘাত প্রাপ্ত হয় এবং তোতা মিয়ার ছেলে রানা গুরুতর আহত হয়। তাদেরকে প্রথমে গাবতলী উপজেলা সরকারি স্বাস্থ্যকমপ্লেক্র ভর্তি করা হয়। তাদের শারিরিক অবস্থার অনবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য বগুড়া শহিদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। উক্ত ঘটনায় এলাকায় উভয় পক্ষের কাউন্সিলর কর্মী সমর্থকদের মধ্য উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে। এসয় আব্দুর রাজ্জাক, শাহ আলম, রেজাউল করিম, আঃ রহিম, জিলহক, আবু তাহের, নজরুল ইসলাম, ইব্রাহিম আলীসহ ১০টি বসত বাড়িতে হামলাসহ একটি দোকান, সিএনজি ও একটি মটর সাইকেল ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। সংবাদ পেয়ে থানা থেকে পুলিশ গিয়ে ঘটনার স্থান নিয়ন্ত্রন আনে। পুনরায় সংঘর্ষ এড়াতে এলাকায় পুলিশ টহল বাড়ানো হায়েছে বলে গাবতলী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ নুরুজ্জামান জানিয়েছেন। এঘটনায় দোষারোপ করে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করেছে কাউন্সিলর গোলাম রব্বানী রতন ও সোহেল রানা।

শেয়ারকরুন: