সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:১২ পূর্বাহ্ন

নোটিশ
আমাদের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম.........
শিরোনাম >>>
গাবতলীতে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের সাথে মতবিনিময় প্রধান অতিথি রাগেবুল আহসান রিপু গাবতলীতে নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত মোকামতলায় এলপিজি অটো গ্যাস ষ্টেশনের উদ্বোধন কাহালুর পাইকড় ইউনিয়নে সরকারি খরচে আইনগত সহায়তা প্রদান বিষয়ক প্রাতিষ্ঠানিক গণশুনানী অনুষ্ঠিত ডোমারে সড়ক দূঘর্টনায় যুবক নিহত গাবতলীতে শিক্ষক সুজাকে লাঞ্ছিত করায় সুজনের নিন্দা গাবতলীতে শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের মাগফিরাত ও জীবিতদের কল্যাণ কামনায় দোয়া মাহফিল গাবতলীর নেপালতলী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড’র কমিটি অনুমোদন বগুড়া সদরের নিশিন্দারা ইউনিয়নের দশটিকায় ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত সোনাতলা-গাবতলী সড়কে  ট্রাকের চাপায় পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই মোটরসাইকেল আরোহী মৃত্যু হয়েছে

গাবতলীতে ৪মেয়র ২মহিলা ১০পুরুষ কাউন্সিলর প্রার্থীর জামানত বাজেয়াপ্ত

গাবতলীতে ৪মেয়র ২মহিলা ১০পুরুষ কাউন্সিলর প্রার্থীর জামানত বাজেয়াপ্ত

মোহাম্মাদ আবু মুসাঃ বগুড়ার গাবতলী পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি ও আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ছাড়া সকল মেয়র প্রার্থীরই জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও রিটানিং অফিসার মোছাঃ রওনক জাহান এবং উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা রুহুল আমীন জানান, ভোট কাষ্টটিং এর ৮ভাগের ১ভাগ কম ভোট পেলে সেই প্রার্থীর জামানত বাজেয়াপ্ত হবে। গাবতলী পৌরসভায় মোট ১৭হাজার ৪’শ ২৩জন ভোটারের মধ্যে ১৩হাজার ৯’শ ৯জন ভোটাধিকার প্রয়োগ করলে বৈধ ভোট হয় ১৩হাজার ৬’শ ৬৮ এবং বাতিল হয় ২’শ ৪১ভোট। কাষ্টটিং ভোটের ৮ভাগের ১ভাগ অনুযায়ী একজন মেয়র প্রার্থীর কমপক্ষে ১হাজার ৭’শ ৩৮ভোট পেতে হবে। অপর ৪জন মেয়র প্রার্থী জামানত ফিরে পাওয়ারমত ভোট পাননি। ফলে জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে এমন মেয়র প্রার্থীরা হলেন জাতীয় পার্টি (এরশাদ) মনোনীত প্রার্থী ফজলে রাব্বী তনু (লাঙ্গল প্রতিক) ২’শ ৪১ভোট পেয়েছেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ (চরমোনাই পীর) মনোনীত মিজানুর রহমান মানিক হাত পাখা প্রতিক ৪’শ ৪৩ভোট, স্বতন্ত্র প্রার্থী আইয়ুব হোসেন রাজু পাইকার জগ প্রতিকে ৭’শ ৭৬ভোট, আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী সাজেদুল আলম রাসেল নারকেল গাছ প্রতিকে ১’শ ৩৪ভোট পেয়েছেন। আর জামানত ফিরে পাবেন বিএনপি মনোনীত প্রার্থী সাইফুল ইসলাম (ধানের শীষ প্রতিক) নির্বাচিত মেয়র। তাঁর প্রাপ্ত ভোট ৬হাজার ৯’শ ৫৯ এবং নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী মোমিনুল হক শিলু নৌকা প্রতিকে ৫হাজার ১’শ ১৫ভোট পেয়েছেন। সংরক্ষিত মহিলা ১নং ওয়ার্ডে শিমু আকতার (আনারস) ১হাজার ৫’শ ৯৭ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। জামানত ফিরে পেতে কমপক্ষে ৬’শ ২ভোট পাওয়ার প্রয়োজন ছিল। এখানে ৪জন প্রার্থীর মধ্যে শুধু মাহফুজা আকতার (জবা ফুল) ২’শ ৯২ ভোট তিনি জমানত হারিয়েছেন। ২নং ওয়ার্ডে আঞ্জুয়ারা বেগম (টেলিফোন) ১হাজার ৬’শ ৭১ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। জামানত ফিরে পেতে কমপক্ষে ৫’শ ৪২ভোট পাওয়ার প্রয়োজন ছিল। এখানে ৩জন প্রার্থীর মধ্যে কোন প্রার্থীই জমানত হারায়নি। ৩নং ওয়ার্ডে লাবলী আকতার তুলি (আনারস) ১হাজার ৪’শ ৫৬ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। জামানত ফিরে পেতে কমপক্ষে ৫’শ ৯৩ভোট পাওয়ার প্রয়োজন ছিল। এখানে ৪জন প্রার্থীর মধ্যে শুধু মালেকা বেগম (জবা ফুল) ৫’শ ১৬ভোট তিনি অল্পের জন্য জমানত হারিয়েছেন। ১নং ওয়ার্ডে শাহজাহান আলী (উট পাখি) ৬’শ ১৫ভোট পেয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। জামানত ফিরে পেতে কমপক্ষে ১’শ ৮০ভোট পাওয়ার প্রয়োজন ছিল। এখানে ৫জন প্রার্থীর মধ্যে ২জন প্রার্থী জামানত হারিয়েছেন এরা হলেন রিগ্যান ইসলাম (পাঞ্জাবী) ৪৮ভোট ও ইউনুছ আলী (পানির বোতল) ১’শ ২৫ভোট পেয়েছেন। ২নং ওয়ার্ডে হযরত আলী হিরণ পাইকার (পাঞ্জাবী) ৫’শ ৩৬ভোট পেয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। জামানত ফিরে পেতে কমপক্ষে ১’শ ৯৩ভোট পাওয়ার প্রয়োজন ছিল। এখানে ৬জন প্রার্থীর মধ্যে ২জন প্রার্থী জামানত হারিয়েছেন এরা হলেন বকুল মিয়া (পানির বোতল) শুধু ৮ভোট ও তাজুল ইসলাম (ডালিম) শুধু ৭৫ভোট পেয়েছেন। ৩নং ওয়ার্ডে মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তা (ডালিম) ৭’শ ৪১ভোট পেয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। জামানত ফিরে পেতে কমপক্ষে ২’শ ২৮ভোট পাওয়ার প্রয়োজন ছিল। এখানে ৪জন প্রার্থীর মধ্যে ১জন প্রার্থী রহেদুজ্জামান (পানির বোতল) ৬৪ভোট পাওয়ায় জামানত হারিয়েছেন। ৪নং ওয়ার্ডে সিরাজুল ইসলাম (ডালিম) ৬’শ ৬৬ভোট পেয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। জামানত ফিরে পেতে কমপক্ষে ২’শ ৯ভোট পাওয়ার প্রয়োজন ছিল। এখানে ৫জন প্রার্থীর মধ্যে ২জন প্রার্থী জামানত হারিয়েছেন এরা হলেন সোহেল রানা (পানির বোতল) শুধু ৮০ভোট ও মোঃ আপেল (পাঞ্জাবী) ১’শ ৫৬ভোট পেয়েছেন। ৫নং ওয়ার্ডে হারুন আর রশীদ হারুন (ঢেঁড়শ) ৬’শ ৫৭ভোট পেয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। অপর প্রার্থী মনির ইসলাম পিপুল ভোট পেয়েছেন ৪’শ ৮৬। জামানত ফিরে পেতে কমপক্ষে ১’শ ৪৮ভোট পাওয়ার প্রয়োজন ছিল। অতএব কোন প্রার্থীই এখানে জামানত হারায়নি। ৬নং ওয়ার্ডে সাদিদ হাসান সিদ্দিক (বø্যাক বোর্ড) ৫’শ ৪৪ভোট পেয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। জামানত ফিরে পেতে কমপক্ষে ১’শ ৮৪ভোট পাওয়ার প্রয়োজন ছিল। এখানে ৪জন প্রার্থীর মধ্যে ১জন প্রার্থী মুরাদ হাসান সরকার (উট পাখি) শুধু ২৬ভোট পাওয়ায় জামানত হারিয়েছেন। ৭নং ওয়ার্ডে গোলাম রব্বানী রতন (উট পাখি) ৮’শ ৭ভোট পেয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। অপর প্রার্থী সোহেল রানা প্রামানিক ৭’শ ৮ভোট পেয়েছেন। জামানত ফিরে পেতে কমপক্ষে ১’শ ৯৪ভোট পাওয়ার প্রয়োজন ছিল। অতএব কোন প্রার্থীই এখানে জামানত হারায়নি। ৮নং ওয়ার্ডে ওবাইদুর রহমান জ্যাক (পাঞ্জাবী) ৮’শ ৮ভোট পেয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। জামানত ফিরে পেতে কমপক্ষে ১’শ ৯৮ভোট পাওয়ার প্রয়োজন ছিল। এখানে ৪জন প্রার্থীর মধ্যে ২জন প্রার্থী জামানত হারিয়েছেন এরা হলেন সোনা উল্লা মোল্লা সোনা (পানির বোতল) শুধু ৮২ভোট ও মাহবুব আলম (ডালিম) ১’শ ৬৭ভোট পেয়েছেন। ৯নং ওয়ার্ডে ছামছুল প্রাং (উট পাখি) ৫’শ ৭১ভোট পেয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। জামানত ফিরে পেতে কমপক্ষে ২’শ ১ভোট পাওয়ার প্রয়োজন ছিল। এখানে ৩জন প্রার্থীর মধ্যে কেউ জামানত হারায়নি।

শেয়ারকরুন: