সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪১ পূর্বাহ্ন

নোটিশ
আমাদের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম.........
শিরোনাম >>>
গাবতলীতে যুবদল নেতা সোহাগ অসুস্থ্য ॥ টিএমএসএস হাসপাতালে ভর্তি সোহেল সভাপতি, মনিন্দ্র সম্পাদক গাবতলীর সুখানপুকুর ৭নং ওয়ার্ড যুবলীগের সম্মেলন বগুড়ায় ২৯৭ তম রোভার স্কাউট লিডার ওরিয়েন্টেশন কোর্স’২১ অনুষ্ঠিত গাবতলীর কাগইলে প্রতিন্ধীদের কল্যাণে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত গাবতলীর দক্ষিনপাড়া লাংলু তরুণ সংঘ উন্নয়ন ক্লাব উদ্বোধন কাহালুর ডোমরগ্রাম কেন্দ্রীয় বড় জামে মসজিদের ছাদ ঢালাই কাজের উদ্বোধন শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মাজারে ফুলেল তোড়া দিয়ে শ্রদ্ধা জানালেন নব-গঠিত কেন্দ্রীয় কৃষকদলের নেতৃবৃন্দ ধ্বংসের শেষ ধাপে ঐতিহ্যবাহী তুষভান্ডার জমিদার বাড়ী বগুড়ায় দেড় কেজি গাজা ও চাপাতি সহ গ্রেফতারঃ ১ সোনাতলায় হাইস্কুল মাঠে ফুটবল টুর্ণামেন্ট উদ্বোধন কামালেরপাড়া একাদশের কাছে বিশুরপাড়া গ্রাম উন্নয়ন সংস্থা ২-১ গোলে পরাজিত

ডোমারে স্বাধীনতা দিবস অনুষ্টান বর্জন করবেন মুক্তিযোদ্ধারা

ডোমারে স্বাধীনতা দিবস অনুষ্টান বর্জন করবেন মুক্তিযোদ্ধারা

ডোমার(নীলফামারী )প্রতিনিধিঃ নীলফামারীর ডোমারে ২৩ মার্চ মংগলবার দুপুর সাড়ে ১২ টায় আসন্ন মহান স্বাধীনতা দিবসে (২০২১ ইং ) জাতীয় পতাকা উত্তোলন পর্বে স্বাধীনতা বিরোধী পরিবারের সন্তানকে সম্পৃক্ত করার প্রতিবাদে ডোমার ইউএনওকে স্বারকলিপি প্রদান করেন স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা ।
জানা গেছে, আসন্ন স্বাধীনতা দিবস (২০২১ইং) উপলক্ষে ডোমার উপজেলা প্রশাসন জাতীয় পতাকা উত্তোলন পর্বে তালিকাভুক্ত স্বাধীনতা বিরোধীর সন্তান উপজেলা চেয়ারম্যান তোফায়েল আহমেদ এর নাম সম্পৃক্ত করলে মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সকল সদস্যবৃন্দ অনুষ্টান বর্জনের সিন্ধান্ত নেন ।
আসন্ন স্বাধীনতা দিবসে (২০২১ইং) জাতীয় পতাকা উত্তোলন পর্ব থেকে তালিকাভুক্ত স্বাধীনতা বিরোধীর সন্তান উপজেলা চেয়ারম্যান তোফায়েল আহমেদকে বিরত রাখার জন্য অনুরোধ জানিয়ে ডোমার ইউএনও কে স্বারকলিপি প্রদান করেন স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা ।
উল্লেখ্য,গত ১৬ই ডিসেম্বর (২০১৯ইং) বিজয় দিবস অনুষ্টানে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন পর্বে তালিকাভুক্ত স্বাধীনতা বিরোধীর সন্তান উপজেলা চেয়ারম্যান তোফায়েল আহমেদ এর নাম ঘোষনা হওয়ায় উপস্থিত মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সকল সদস্যবৃন্দ বর্জন করেন ।

এ ব্যাপারে ডোমার উপজেলা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার মোঃ নুরন নবী জানান,গত বিজয় দিবস (২০১৯ ইং) আমরা প্রশাসনের অনুষ্টান বর্জন করেছি ।কারণ এক সাগর রক্তের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীনতার পতাকা কোন রাজাকার সন্তান উত্তোলন করুক ,তা আমরা চাই না ।এবারও যদি ওই রাজাকার পুত্র উত্তোলন করে তাহলে এবারও প্রশাসনের অনুষ্টান বর্জন করা হবে ।আমরা আলাদাভাবে অনুষ্টান করব ।
এ ব্যাপারে ডোমার উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা শাহিনা শবনম জানান,অনেক মুক্তিযোদ্ধা এসেছিলেন ,গত বিজয় দিবস (২০১৯ইং) এ সমস্যা হয়েছিল ।২০১৯ সালে একটি গেজেট প্রকাশ হয়েছিল ,সেখানে উপজেলার একজনের নাম এসেছিল ,সে পরিপেক্ষিতে মুক্তিযোদ্ধারা অনুষ্টান বর্জন করেছিল ।এবারও বর্জন করা নিয়ে স্বারকলিপি প্রদান করে।
তবে নীতিমালায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউএনও পতাকা উত্তোলনের কথা বলা হয়েছে ।আমি উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সংগে কথা বলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ারকরুন: