সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:৪৬ পূর্বাহ্ন

নোটিশ
আমাদের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম.........
শিরোনাম >>>
গাবতলীতে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের সাথে মতবিনিময় প্রধান অতিথি রাগেবুল আহসান রিপু গাবতলীতে নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত মোকামতলায় এলপিজি অটো গ্যাস ষ্টেশনের উদ্বোধন কাহালুর পাইকড় ইউনিয়নে সরকারি খরচে আইনগত সহায়তা প্রদান বিষয়ক প্রাতিষ্ঠানিক গণশুনানী অনুষ্ঠিত ডোমারে সড়ক দূঘর্টনায় যুবক নিহত গাবতলীতে শিক্ষক সুজাকে লাঞ্ছিত করায় সুজনের নিন্দা গাবতলীতে শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের মাগফিরাত ও জীবিতদের কল্যাণ কামনায় দোয়া মাহফিল গাবতলীর নেপালতলী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড’র কমিটি অনুমোদন বগুড়া সদরের নিশিন্দারা ইউনিয়নের দশটিকায় ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত সোনাতলা-গাবতলী সড়কে  ট্রাকের চাপায় পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই মোটরসাইকেল আরোহী মৃত্যু হয়েছে

পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর মাত্র ৬ ঘন্টায় বৃদ্ধা মরিয়মের ভাগ্যে জুটলো বয়স্ক ভাতার কার্ড

পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর মাত্র ৬ ঘন্টায় বৃদ্ধা মরিয়মের ভাগ্যে জুটলো বয়স্ক ভাতার কার্ড

পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের মাত্র ৬ ঘন্টা পর বগুড়ার সোনাতলার ৭৫ বছর বয়সী বৃদ্ধা মরিয়য়ের ভাগ্যে জুটলো বয়স্ক ভাতার কার্ড। দীর্ঘদিন অবসানের পর অবশেষে বয়স্ক ভাতার কার্ড পেয়ে ভিক্ষুক মরিয়ম আনন্দে আত্মহারা হয়ে পড়েছে। তিনি যতদিন জীবিত থাকবেন ততদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান জুলফিকার রহমান শান্ত ও সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আবু সাঈদ মোঃ কাওছার রহমানের জন্য দোয়া করবেন বলে তাৎক্ষনিক প্রতিক্রিয়ায় এ কথা ব্যক্ত করেন।
বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার পাকুল্লা ইউনিয়নের হুয়াকুয়া গ্রামের বাসিন্দা মৃত জামাতুল্লা সরকারের মেয়ে মরিয়ম বেওয়া (৭৫)। মাত্র ১৩/১৪ বছর বয়সে বগুড়া শহরের কলোনী এলাকার মৃত আব্দুল হালিমের সাথে তার বিয়ে হয়। মাত্র দুই বছরের দাম্পত্য জীবনে তাদের ঘরে জন্ম নেয় মোরতাজ নামের এক পুত্র সন্তান। এর কিছুদিন পর তার স্বামী আব্দুল হালিম নিখোঁজ হয়। ভাগ্যের কি নির্মম পরিহাস বৃদ্ধা মাতাকে নানির বাড়িতে রেখে একমাত্র পুত্র মোরতাজ শ্বশুরালয় দুপচাঁচিয়া চলে যায়। ফলে মরিয়ম বেওয়া ভিক্ষাবৃত্তি পেশা বেঁচে নেয়।
বৃদ্ধা মরিয়ম জানান, বয়সের ভাড়ে নুয়ে পড়ায় ভিক্ষাবৃত্তি কিংবা অন্যের দ্বারে না গেলে তার অন্ন জোটেনা। সে শুধু তাকিয়ে থাকে তার হিতাকাঙ্খিদের দিকে। কখন কে তার সামনে এনে দেবে এক মুঠো অন্ন।
এ অবস্থায় দৈনিক করতোয়া পত্রিকায় এ সংক্রান্ত ওই বৃদ্ধার স্বচিত্র একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হলে সকাল ৬টায় দৃষ্টি কাড়ে জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আবু সাঈদ মোঃ কাওছার রহমানের। তিনি সাথে সাথে এ বিষয়ে সোনাতলা উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা মোছাঃ শাহিনুর আফরোজকে ওই বৃদ্ধার বয়স্ক ভাতার কার্ড তাৎক্ষনিকভাবে করে দেওয়ার জন্য নির্দেশ প্রদান করেন। এরপর বিষয়টি সমাজ সেবা কর্মকর্তা স্থানীয় পাকুল্লা ইউপি চেয়ারম্যান জুলফিকার রহমান শান্তকে অবগত করেন। এরপর বেলা ১২টায় ওই বৃদ্ধাকে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদে নিয়ে এসে বয়স্ক ভাতার কার্ড তার হাতে তুলে দেন চেয়ারম্যান জুলফিকার রহমান শান্ত।
এ ব্যাপারে পাকুল্লা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জুলফিকার রহমান শান্ত জানান, খুব অল্প সময়ে একটি অসহায় মানুষের হাতে বয়স্ক ভাতার কার্ড তুলে দিতে পেরে তিনি গর্বিত।
এ বিষয়ে জেলা সমাজ সেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আবু সাঈদ মোঃ কাওছার রহমান জানান, এমন একজন অসহায় মাকে আমার উপর অর্পিত দায়িত্ব আমি পালন করতে পারলাম। এটা আমার কাছে খুব আনন্দদায়ক।

শেয়ারকরুন: