বৃহস্পতিবার, ০৫ অগাস্ট ২০২১, ০৫:২৪ অপরাহ্ন

নোটিশ
আমাদের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম.........
শিরোনাম >>>
শাজাহানপুরের খোট্রাপাড়া’য় জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় সাজ্জাদুজ্জামান জয়ের পরিচালনায় করোনা হেলথ ক্যাম্প অনুষ্ঠিত গাবতলীতে পত্রিকা বিক্রেতাকে হত্যার হুমকি; থানায় অভিযোগ গাবতলীতে স্কুল ছাত্রীকে ইভটিজিং থানায় ৩ জনের নামে অভিযোগ গাবতলীতে এক অন্ধ’র বাড়ি পুড়েছে খোলা আকাশের নিচে তাদের বসবাস সরকার আসে, সরকার যায় তাদের নেতাকর্মী প্রতিশ্রুতি দেয়- সোনাতলায় ৩শ’ ফুট কাঁচা রাস্তা কাঁচাই রয়ে গেল জনপ্রতিনিধিকে খুশি করতে না পারায়-৭৯ বছর বয়সেও বয়স্ক ভাতা ভাগ্য জোটেনি সুমতি রানীর কাহালুতে ট্রাক চাপায় মোটর সাইকেল চালক নিহত কাহালুতে করোনার টিকাদান কর্মসূচী সফল করার লক্ষ্যে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত লাখো মানুষের চলাচলে চরম দুর্ভোগ- গাবতলী-চৌকিরঘাট সড়কে অসংখ্যস্থানে গর্তের সৃষ্টি গাবতলীর কাগইলে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় সাজ্জাদুজ্জামান জয়ের পরিচালনায় করোনা হেলথ ক্যাম্প অনুষ্ঠিত

পুলিশ তদন্ত করে যাওয়ার পরই সাংবাদিকের উপর হামলা

পুলিশ তদন্ত করে যাওয়ার পরই সাংবাদিকের উপর হামলা

জয়পুরহাট থেকে রিপোর্টঃ

দোকানের পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে থানায় অভিযোগের পর পুলিশ ঘটনাস্থল তদন্ত করে যাওয়ার পরই ওই দোকান মালিকের ছেলে সাংবাদিক মেহেদী হাসান রাজুর (২৮) উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। ২৭ এপ্রিল মঙ্গলবার দুপুরে নওগাঁর ধামইরহাট ইসবপুর বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার পর হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন তিনি। সে জাতীয় দৈনিক বাংলাদেশ কণ্ঠ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার হিসেবে কর্মরত আছে।

ভুক্তভোগী সাংবাদিক মেহেদী হাসান রাজু ও স্থানীয়রা জানান, আমার গ্রামের বাড়ি নওগাঁর ধামইরহাট ইসবপুর বাজারে একটি কীটনাশকের দোকান আছে। দোকান থেকে ইসবপুর এলাকার দুলাল হোসেনের ছেলে ফিরোজ হোসেন ২ হাজার ৭৭৫ টাকা বাঁকীতে কীটনাশক ক্রয় করে।

গত ২৫ এপ্রিল বাঁকী টাকা চাইতে গেলে আমার বাবা রজব আলী ও ছোট ভাই সাজুর সাথে কথা কাটাকাটি, অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ, কিল-ঘুষি মারে। টাকা দিব না কিভাবে তুলে নেস, তোদের পরিবারকে জানে মেরে ফেলবো বলে এমন হুমকি দেয়। এরপর আমার পরিবারের সীদ্ধান্তে আমি গত ২৬ এপ্রিল ধামইরহাট থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করি। অভিযোগ নম্বর ৪৮৫। অভিযোগের প্রেক্ষিতে থানা পুলিশের এএসআই আশরাফুল ইসলাম ২৭ এপ্রিল মঙ্গলবার দুপুরে ঘটনাস্থল তদন্ত করে।

পুলিশ চলে যাওয়ার কিছুক্ষণ পরই এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও মাদক কারবারি জিয়াউর রহমান ভুট্টু, তার ছেলে মেহেদী হাসান, ফিরোজ হোসেন, আতোয়ার রহমান সহ ৮-১০ জনের একটি দল হাতে হাতুরি, লাঠি দিয়ে আমাকে এলোপাতারি মারধর করে।

স্থানীয়রা তাৎক্ষণিক তাকে উদ্ধার করে জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতালে চিকিৎসা পাঠায়।

এ ব্যাপারে ধামইরহাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল মুমিন জানান, তাদের একটি অভিযোগে পুলিশ তদন্তে গিয়েছিল। তারপরে কিছু ঘটে থাকলে লিখিত অভিযোগ করলে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ারকরুন: