শনিবার, ২৪ Jul ২০২১, ০৮:৩৫ পূর্বাহ্ন

নোটিশ
আমাদের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম.........
শিরোনাম >>>
বিএনপির দুস্থ নেতাকর্মী, এতিমখানা ও নব মুসলিমকে মাংস প্রদান বেগম খালেদা জিয়ার সুস্থ্যতা কামনা করে গাবতলীর উজগ্রামে দোয়া মাহফিল ১১০টি পরিবারের মুখে হাসি ফুটালেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মওদুদ আহম্মেদ জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা’র সাবেক মহাসচিব সাজ্জাদুল কবির মারা গেছেন নেতৃবৃন্দ’র শোক গাবতলীর মহিষাবান ইউনিয়ন পরিষদে ভিজিএফ’র চাল বিতরণ জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা’র জেলা সদস্য বাবু’র পিতার মৃত্যুতে নেতৃবৃন্দ’র শোক সোনাতলায় দিনদিন বেরেই চলেছে চোরের উপদ্রব-কৌশলে আবারো ইজিবাইক চুড়ি নন্দীগ্রামে নিজস্ব অর্থায়নে অসহায়দের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করলেন এম পি মোশারফ হোসেন কালাই ইউনিয়ন পরিষদে ভিজিএফের চাল বিতরণ করলেন ইউ পি চেয়ারম্যান হান্নান বগুড়ায় পুকুরে ডুবে বৃদ্ধের মৃত্যু

বগুড়ার আলোচিত তুফান সরকারের জামিন

বগুড়ার আলোচিত তুফান সরকারের জামিন

অনলাইন ডেস্কঃ বগুড়ার আলোচিত ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামী তুফান সরকারকে জামিন দিয়েছে আদালত। গ্রেফতারের প্রায় সাড়ে ৩ বছর পর জামিন পেয়েছেন বগুড়ার বহুল আলোচিত মা-মেয়ের মাথা মুণ্ডন করে নির্যাতন মামলার প্রধান আসামী তুফান সরকার। রোববার বগুড়ার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুন্যাল-১’র বিচারক একেএম ফজলুল হক তুফান সরকারে জামিনের এই আদেশ দেন।

উল্লেখ্য যে, ২০১৭ সালের ১৭ জুলাই তুফান সরকার এবং তার সহযোগীরা এক ছাত্রীকে ভালো কলেজে ভর্তির প্রলোভন দেখিয়ে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। পড়ে তুফানের স্ত্রী আশা এবং স্ত্রীর বোন বগুড়া পৌরসভার কাউন্সিলর মারজিয়া হাসান রুমকি ধর্ষণের শিকার মেয়ে এবং তার মাকে মারপিট করার পরে মাথা নেড়ে করে দেয়।
পরদিন মেয়েটির মা বাদী হয়ে অপহরণ, ধর্ষণ, নির্যাতন এবং মারপিটের অভিযোগে দুটি মামলা করলে ওই দিনই তুফান সরকারকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পাশাপাশি গ্রেফতার হন কাউন্সিলর রুমকিসহ মামলার অন্য আসামীরাও। এই ঘটনায় সারা দেশেব্যাপী তখন ব্যাপক প্রতিবাদ এবং আন্দোলন শুরু হয় তুফান সরকার এবং তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে। তিনি ততকালীন বগুড়া শহর শ্রমিক লীগের বহিস্কৃত আহ্বায়ক ছিলেন।
জানা যায়, গত কয়েক বছরে মামলার ১২জন আসামি বিভিন্ন সময়ে জামিন পেয়েছে। কিন্তু এদিকে ৩ বছর ৫ মাসেরও বেশি সময় ধরে কারাগারে ছিলেন প্রধান আসামী তুফান সরকার। এর আগে উচ্চ আদালতে একাধিকবার চেষ্টা করেও জামিন পাননি তিনি। তবে সর্বশেষ রোববার বগুড়ার আদালতে জামিন পেয়েছেন দেশব্যাপী আলোচিত এই মামলার প্রধান আসামী।
১৭ জানুয়ারী রোববার আসামি পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আব্দুল মান্নাফ আদালতে তুফানের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া ধর্ষণ মামলার জামিন চাইলে বগুড়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল এর বিচারক একেএম ফজলুল হক এই জামিন আদেশ দেন।
বগুড়ার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট নরেশ মুখার্জী জামিনের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান যে, আসামীপক্ষ জামিন আবেদন করলে এবারো তারা বিরোধীতা করেছিলেন। কিন্তু তারপরও আদালত জামিন দিয়েছেন।
তিনি আরও জানান যে, এ ঘটনায় তুফান সরকারের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও মা-মেয়েকে নির্যাতন ঘটনায় দুটি মামলা হয়েছিল। নির্যাতন মামলায় সে আগেই জামিন পায়, রবিবার পেয়েছেন ধর্ষণ মামলার জামিন। এ সময় মা-মেয়ে আদালতে উপস্থিত থেকে জামিন দিলে তাদের অনাপত্তির কথা আদালতকে জানায়।
‘আসামীর প্রতি এখন তাদের আর কোনও ক্ষোভ নেই’- রোববার আদালতে মামলার বাদী এমন বক্তব্য দেয়ায় তাদের ধারণা, মামলাটি নিয়ে উভয়পক্ষ আপোষ-রফার চেষ্টা করছে বলে বগুড়া নারী -শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল এর স্পেশাল পিপি নরেশ মুখার্জি মনে করেন।

শেয়ারকরুন: