শনিবার, ২৪ Jul ২০২১, ০৭:৪২ পূর্বাহ্ন

নোটিশ
আমাদের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম.........
শিরোনাম >>>
বিএনপির দুস্থ নেতাকর্মী, এতিমখানা ও নব মুসলিমকে মাংস প্রদান বেগম খালেদা জিয়ার সুস্থ্যতা কামনা করে গাবতলীর উজগ্রামে দোয়া মাহফিল ১১০টি পরিবারের মুখে হাসি ফুটালেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মওদুদ আহম্মেদ জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা’র সাবেক মহাসচিব সাজ্জাদুল কবির মারা গেছেন নেতৃবৃন্দ’র শোক গাবতলীর মহিষাবান ইউনিয়ন পরিষদে ভিজিএফ’র চাল বিতরণ জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা’র জেলা সদস্য বাবু’র পিতার মৃত্যুতে নেতৃবৃন্দ’র শোক সোনাতলায় দিনদিন বেরেই চলেছে চোরের উপদ্রব-কৌশলে আবারো ইজিবাইক চুড়ি নন্দীগ্রামে নিজস্ব অর্থায়নে অসহায়দের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করলেন এম পি মোশারফ হোসেন কালাই ইউনিয়ন পরিষদে ভিজিএফের চাল বিতরণ করলেন ইউ পি চেয়ারম্যান হান্নান বগুড়ায় পুকুরে ডুবে বৃদ্ধের মৃত্যু

বগুড়ায় স্বামী পরিত্যক্তা সরকারি ভাতার কার্ড দেওয়ার প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগ

বগুড়ায় স্বামী পরিত্যক্তা সরকারি ভাতার কার্ড দেওয়ার প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগ

সেলিম রেজা, শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি : সরকারি ভাতার কার্ড পাইয়ে দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে হতদরিদ্র এক স্বামী পরিত্যক্তা নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন । শেরপুর উপজেলার চকখানপুর আবুল হোসেনের ছেলে গ্রামের গ্রাম্য মাতব্বর কামরুল ইসলাম (৪০) এর ধর্ষণের শিকার হয়েছেন হতদরিদ্র এক স্বামী পরিত্যক্তা নারী। তিনি ওই গ্রামের প্রধান মাতব্বর। এ ঘটনায় ধর্ষণের শিকার স্বামী পরিত্যক্তা ওই নারী গত ৪ অক্টোবর দুপুরের দিকে গ্রাম্য মাতব্বর কামরুল ইসলামের বিরুদ্ধে শেরপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
জানা গেছে, উপজেলার চকখানপুর গ্রামের দিনমজুরের মেয়ে (২৮) দীর্ঘদিন ধরে স্বামী পরিত্যক্তা হয়ে বাবার বাড়িতে অবস্থান করছেন। তার অভাব-অনটনের সংসার। জীবিকার তাগিদে মেয়েটি মানুষের বাড়ি বাড়ি ঘুরে বেড়ান। খেয়ে না খেয়ে দিন যাপন করেন। মেয়েটির অভাব-অনটনের সুযোগ নেন গ্রামের মাতব্বর কামরুল ইসলাম। মেয়েটিকে স্বামী পরিত্যক্তা সরকারি একটি ভাতার কার্ড পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে গভীর সম্পর্ক গড়ে তোলেন। স্বামী পরিত্যক্তা সরকারি কার্ড পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে প্রায় এক মাস ধরে বিভিন্ন সময়ে কামরুল ইসলাম মেয়েটিকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ করেছেন। সম্ভ্রমহানির পরও মেয়েটিকে ভাতার কার্ড করে দেয়নি। গত শনিবার রাতে মেয়েটির বাড়িতে গিয়ে মেয়েটির সাথে শারীরিক সম্পর্কের চেষ্টা করেন মাতব্বর কামরুল। রাজি না হওয়ায় মেয়েটিকে আবারও জোর করে ধর্ষণ করেন মাতব্বর কামরুল ইসলাম। ঘটনার পর থেকে মাতব্বর পলাতক।
এবিষয়ে জানতে চাইলে শেরপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ বলেন, এ বিষয়ে মামলা হয়েছে। আসামী ধরতে অভিযান চলছে।

শেয়ারকরুন: