সোমবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২২, ০১:১৮ অপরাহ্ন

নোটিশ
আমাদের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম.........
শিরোনাম >>>
কাহালুর জামগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ের অভিভাবক সদস্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত রইছউল আলম মন্ডল রাকাব’র চেয়ারম্যান হিসেবে পুন:নিয়োগ গাবতলীর কদমতলীতে চেয়ারম্যান প্রার্থী গামা’র নির্বাচনী অফিস উদ্ধোধন গাবতলীতে বিদ্যুৎ খুটি থেকে সেচ পাম্পের তিনটি ট্রান্সফর্মার চুরি দলীয় প্রার্থীর বিপক্ষে অবস্থান নেয়ায় গাবতলীতে আ’লীগের ছয় নেতাকে বহিস্কার গাবতলীতে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের উদ্যোগে দোয়া অনুষ্ঠিত গাবতলীতে আগুনে পোড়া বাড়ী পরিদর্শন ও কম্বল বিতরণ করলেন ইউএনও রওনক জাহান গাবতলীতে ফুটবল টুর্ণামেন্টের ফাইনাল ও পুরস্কার বিতরণ সোনাতলায় ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করছে আপন দুই সহোদর টিএমএসএস মমইন বিনোদন জগতে আইসক্রিম পার্লারের উদ্বোধন

বগুড়া সদরের কসাইপাড়ায় পুরুষাঙ্গে বিদ্যুতের শক দিয়ে নির্যাতনের অভিযোগ; খাওয়ানো হয় মুত্র

বগুড়া সদরের কসাইপাড়ায় পুরুষাঙ্গে বিদ্যুতের শক দিয়ে নির্যাতনের অভিযোগ; খাওয়ানো হয় মুত্র

শাফায়াত সজল, বগুড়া জেলা প্রতিনিধিঃ বগুড়া সদর উপজেলার এরুলিয়া ইউনিয়নের শিকারপুর পূর্বপাড়া (বাঁশবাড়িয়া কসাইপাড়া) গ্রামে টাকা চুরির মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে রাস্তা থেকে বাড়িতে জোড় করে তুলে নিয়ে গিয়ে এক যুবককে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্মম নির্যাতন এর ঘটনা ঘটেছে।

ন্যায় বিচার পাওয়ার আশায় থানায় অভিযোগ দায়ের। অপরদিকে আহত যুবককে মূমূর্ষ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে ।

এলাকাবাসী, থানায় লিখিত অভিযোগ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, এরুলিয়া ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের শিকারপুর পূর্বপাড়া (বাশঁবাড়িয়া কসাইপাড়া) গ্রামের মৃত বাচ্চু মিয়ার ছেলে, দিনমজুর সাদ্দাম হোসেন (২১) কে  (১৬/০৬/২০২১) বুধবার, সকাল আনুমানিক ৯টার সময় একই গ্রামের মৃত আমজাদ হোসেন এর ছেলে আইনুল ইসলাম এর নেতৃত্বে, রঞ্জন, সালমা বেগম, ভোজো সহ অজ্ঞাত ৬/৭ জন ব্যক্তি তাকে তুলে নিয়ে আইনুলের বাড়িতে আটকে রাখে।

তারপর শুরু হয় সকাল ৯টা থেকে রাত ১০ টা পর্যন্ত সাদ্দামকে হাত পা বেঁধে মধ্যযুগীয় কায়দায় লোহার রড ও কাঠের বাটাম দিয়ে বেধড়ক মারপিট। এমনকি তার পুরুষাঙ্গে বিদ্যুৎ এর শক দিয়েও ক্ষান্ত হয়নি অভিযুক্তরা। টাকা চুরির কথা স্বীকার করার জন্য আরো চাপ দেওয়া হয় সাদ্দামকে। তবুও সাদ্দাম নিজের সিদ্ধান্তে অটল থাকলে বিবাদীরা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে।

সেজ নির্যাতনের মাত্রা আরো বাড়িয়ে দেয়। একসাথে সবাই মিলে তাকে বেধড়ক মারতে থাকে। অমানসিকভাবে নির্যাতন করার ফলে শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছেলা ফোলা জখম হয়। শুধু তাই নয় আহত সাদ্দাম অভিযোগ করে বলেন তাকে নির্যাতনের কারণে অসুস্থ ও পীপাসার্ত হয়ে পরলে সে পানি খাইতে চায়। এসময় তাকে প্রসাব খাওয়ানো।

এরইমধ্য ঘটনাটি লোক মুখে জানতে পেরে সাদ্দামের বিধবা মা জরিনা বেওয়া (৬৫) ও বোন রানু বেগম সালমা বেগম এর বাড়িতে গেলে তাদেরকেও মারপিট করে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয়। পরে জরিনা বেওয়া সদর থানা পুলিশকে অবহিত করলে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে রাত ১০ টার দিকে সাদ্দামকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়।

এ ঘটনা সাদ্দামের বৃদ্ধা মা আইনুল ইসলামকে বিবাদী করে ৪ জনের নামে থানায় অভিযোগ করেছেন। এই ঘটনায় দিন মজুর অসহায় সাদ্দামের পরিবার নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছেন। পাশাপাশি উক্ত ন্যাক্কার জনক ঘটনার সাথে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য পুলিশ প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান।

এব্যপারে বগুড়া সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ সেলিম রেজা জানান, ঘটনাটি প্রাথমিকভাবে জানার পর সাদ্দামকে উদ্ধার করা হয়েছে এবং দুষ্কৃতকারীদের ব্যাপারে খোঁজ খবর নেয়া হচ্ছে। অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ারকরুন: