শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১০:৩৪ পূর্বাহ্ন

নোটিশ
আমাদের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম.........
শিরোনাম >>>
গাবতলীতে মোটর সাইেকেলের ধাক্কায় কলা ব্যবসায়ী নিহত লুকু সভাপতি, তাসকিন সম্পাদক নির্বাচিত গাবতলী পৌর ছাত্রদলের সম্মেলন অনুষ্ঠিত জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিতএম এ মতিন,কাহালু (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ গাবতলীতে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের কমিটি গঠন প্রধান অতিথি ইঞ্জিঃ ইশরাক হোসেন গাবতলী থানা ছাত্রদলের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত সোনাতলায় জোরপুর্বক জমিদখলের চেষ্টা অতঃপর বাড়িঘর ভাংচুর, লুটপাটসহ মারধরে আহত-৩ দেহের একটু রক্ত দিলে যদি বাঁচে একটি প্রাণ ধন্য তোমার পিতা মাতা মহৎ তোমার দান সোনাতলায় ছাত্রদলের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত সোনাতলায় পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রতিযোগিতার মাঠে চলছে প্রার্থীদের গনসংযোগ বগুড়া প্রেসক্লাবের সদস্য. দৈনিক চাঁদনী বাজার পত্রিকার সাবেক সম্পাদক মাকছুদুরের ইন্তেকাল

রপ্তানিযোগ্য জাতের আলু উৎপাদনে অপার সম্ভাবনা রপ্তানি ও শিল্পে ব্যবহারযোগ্য আলুর আবাদ বৃদ্ধিতে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে—কৃষিমন্ত্রী

রপ্তানিযোগ্য জাতের আলু উৎপাদনে অপার সম্ভাবনা রপ্তানি ও শিল্পে ব্যবহারযোগ্য আলুর আবাদ বৃদ্ধিতে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে—কৃষিমন্ত্রী

ডোমার(নীলফামারী )প্রতিনিধিঃ কৃষিমন্ত্রী ড.মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, এমপি বলেছেন,কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হল্যান্ড থেকে আলুবীজ নিয়ে এসেছিল,এবং সে বীজ এনে কুষ্টিয়ায় উনি চেষ্টা করেছিলেন ,বাংলাদেশে আলু প্রজ্জালন করার জন্য ।দুঃখজনকভাবে সত্য ,উনি সফল হতে পারেন নাই ।তখন এমন প্রতিষ্টান ছিল না ,কৃষি বিজ্ঞানী ছিল না । আজকে আমরা বাংলাদেশে দেখছি,এক বিঘা জমিতে একশত মন আলু হতে পারে ।যেটি আগে দেশী জাত দিয়ে ছয়/সাত মনও হত না ।বর্তমানে বছরে এক কোটি টনের বেশী উন্নত জাতের আলু উৎপাদন হয় ।দেশে চাহিদা রয়েছে ৬০-৭০ লক্ষ টনের মত ।দেশে উৎপাদিত আলুতে পানির পরিমান বেশী হওয়ায় বিদেশে এর চাহিদা কম ।সে জন্য বিদেশে চাহিদার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে রপ্তানি ও শিল্পে ব্যবহারযোগ্য আলুর আবাদ ও উৎপাদন বৃদ্ধিতে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে ।কৃষি মন্ত্রাণালয় সে লক্ষ্যে নিরলস কাজ করছে ।

কৃষিমন্ত্রী বুধবার দুপুরে নীলফামারীর ডোমার উপজেলায় বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশনর (বিএডিসি)বীজ আলু উৎপাদন খামার পরিদর্শন শেষে এ কথাগুলো বলেন ।মন্ত্রী এদিন রপ্তানি ও শিল্পে ব্যবহারযোগ্য আলুর প্লট, আলু ফসলের মিউজিয়াম,ড্রাগন ও খেজুর বাগান প্রভুতি পরিদর্শন করেন । এ ছাড়া পঞ্চগড়ের দেবীগজ্ঞ উপজেলার তিস্তাপাড়ের কাজুবাদাম,মিষ্টি আলু ,কফি চাষ,প্রসেসিং ও কৃষকদের প্রশিক্ষণ কর্মশালা,বারির বীজ বর্ধন খামার ,গম ও ভুট্টা বীজ উৎপাদন খামার পরিদর্শন করেন ।
এ সময় কৃষি সচিব মোঃ মেসবাহুল ইসলাম,বিএডিসির চেয়ারম্যান মোঃ সায়েদুল ইসলাম,কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোঃ আসাদুল্লাহ,বারির মহাপরিচালক নাজিরুল ইসলাম,গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. মোঃএছরাইল হোসেনসহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন ।
কৃষিমন্ত্রী ড.মোঃ আব্দুর রাজ্জাক,এমপি আরো বলেন,আলু উৎপাদনের দিক থেকে আমাদের নীলফামারী ,ঠাকুরগাও,দিনাজপুরসহ উত্তরাঞ্চল খুবই উপযোগী । এই এলাকায় শীতের সময়টা অনেক বড় ।শীত শুরু হয় আগে ,শীত শেষ হয় পরে ।শীতের তীব্রতাও বেশী ।আবহাওয়াটি আলু উৎপাদনের খুবই উপযোগী ।বীজ উৎপাদনের জন্য ,কম খরচে এই এলাকাটা খুবই উপযোগী ।

শেয়ারকরুন: