রবিবার, ২০ Jun ২০২১, ১২:৪০ অপরাহ্ন

নোটিশ
আমাদের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম.........
শিরোনাম >>>
মহিলা ক্রিকেটদলের অধিনায়ককে গাবতলীতে ফুলেল শুভেচ্ছা আদমদীঘিতে বিলুপ্তীর পথে ঐতিহ্যবাহী বাঁশ শিল্প কাহালুতে ২য় গর্যায় ৩০ট গৃহহীন পরিবার পাচ্ছে দূর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডে পদ পেলেন পত্নীতলার রুবাইত হাসান সান্তাহারে ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার কাহালু পৌর মেয়রকে সচিবালয়ে প্রবেশের কার্ড করে নিয়ে দিলেন এম পি মোশারফ হোসেন কাহালুতে চোর সন্দেহে যুবককে বাড়ী থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন কাহালুতে ৫ জুয়াড়ী আটক ডাঃ জোবাইদা’র জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে গাবতলীতে ছাত্রদলের দোয়া মাহফিল ও খাবার বিতরণ গাবতলীর বাগবাড়ীতে মসজিদ নির্মাণ কাজের উদ্ধোধন করলেন ডাঃ পাভেল

শেরপুরে ড্রেন নির্মাণে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করার অভিযোগ

শেরপুরে ড্রেন নির্মাণে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করার অভিযোগ

আবু রায়হান রানা, শেরপুর (বগুড়া): বগুড়ার শেরপুর পৌরসভার ধুনটমোড় মহাসড়ক থেকে পূর্বে করতোয়া নদী পর্যন্ত সড়ক বিভাগের অধিনে মাষ্টার ড্রেন নির্মান কাজে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করার অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী। ধুনটমোড় থেকে করতোয়া নদী পর্যন্ত সড়ক বিভাগের অধিনে ৪ ফিট প্রশস্থ এবং ৩৩৩ মিটার দৈর্ঘ ওই ড্রেন নির্মান সহ দুইটি কাজে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ৯ কোটি ৩২ লাখ টাকা।
স্থানীয়রা জানায়, নান্বার বিহীন ইট, পুরাতন নিম্নমানের ইটের খোয়া, মেয়াদ উত্তীর্ন সিমেন্ট নিয়ে আসেন ঠিকাদারের লোকজন। ওই সকল নিম্নমানের ইট, খোয়া, সিমেন্ট দিয়ে ড্রেনের তলায় সলিং এর কাজ করা হয়। নির্মান কাজে জড়িত নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রাজমিস্ত্রিরা জানায়, নান্বার বিহীন ইট দিয়ে কাজ করা হচ্ছে। এলাকার নজরুল ইসলাম, কামাল হোসেন, সবুজ মিয়া জানায়, আমরা বারবার অভিযোগ আকারে প্রজেক্ট ম্যানেজার আতিকুর রহমানকে জানালেও তিনি কোন কিছুর তোয়াক্কা না করে কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। এদিকে নিম্নমানের ইট খোয়া দিয়ে ড্রেনের কাজ করায় অতি অল্প সময়ে ড্রেনটি ধসে পড়তে পারে। ফলে পানি চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে। সেক্ষেত্রে সামান্য বৃষ্টির পানিতে এলাকাবাসীর দুর্ভোগ আবারও বাডবে।
খোঁজ নিয়ে আরও জানা গেছে, শেরপুর উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের বোয়ালকান্দি গ্রামের বেইলি ব্রিজের স্থানে সওজের পক্ষ থেকে একটি আরসিসি ব্রিজ নির্মান কাজ একই প্যাকেজে আলাদা আইটেমে ওই ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে দেয়া হয়েছে। এজন্য দুইটি কাজের মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ৯ কোটি ৩২ লাখ টাকা। বোয়ালকান্দিতে রাস্তার পাশে ড্রাইভারশন কাজে জন্য শেরপুর শহরের ধুনট মোড় থেকে পুরাতন ড্রেনের ইট ও মাটি নিয়ে ওই নির্মান কাজের স্থলে স্তুপাকারে রাখা হয়েছে।
বিষয়টি নিয়ে বগুড়া সওজ বিভাগের এসও বাবুল হোসেনের মুঠোফোনে বার বার যোগাযোগ করেও তাকে পাওয়া যায়নি। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের প্রজেক্ট ম্যানেজার আতিকুর রহমান এর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে উত্তেজিত কন্ঠে তিনি বলেন নিম্নমানের কাজের অভিযোগ সঠিক নয়। তিনি জানান, ধুনট মোড় রাস্তার পাশে ড্রেন নির্মান কাজের জন্য শেরপুরের জনৈক এক ব্যক্তিকে ইট-বালু সাপ্লাইয়ের কাজ দেয়া হয়। এরপর ওই সাপ্লায়ার এক ট্রাক নিম্নমানের ইট দিলে অভিযোগের প্রেক্ষিতে সেই ইট পরিবর্তন করা হয়। সেখানে প্রায় তিন সপ্তাহ আগে থেকে এই নির্মান কাজ শুরু হয়েছে তবে অবিরাম বৃষ্টির কারনে এখন কাজ করাই সম্ভব হচ্ছেনা।

শেয়ারকরুন: