সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:১৩ পূর্বাহ্ন

নোটিশ
আমাদের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম.........
শিরোনাম >>>
গাবতলীতে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের সাথে মতবিনিময় প্রধান অতিথি রাগেবুল আহসান রিপু গাবতলীতে নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত মোকামতলায় এলপিজি অটো গ্যাস ষ্টেশনের উদ্বোধন কাহালুর পাইকড় ইউনিয়নে সরকারি খরচে আইনগত সহায়তা প্রদান বিষয়ক প্রাতিষ্ঠানিক গণশুনানী অনুষ্ঠিত ডোমারে সড়ক দূঘর্টনায় যুবক নিহত গাবতলীতে শিক্ষক সুজাকে লাঞ্ছিত করায় সুজনের নিন্দা গাবতলীতে শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের মাগফিরাত ও জীবিতদের কল্যাণ কামনায় দোয়া মাহফিল গাবতলীর নেপালতলী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড’র কমিটি অনুমোদন বগুড়া সদরের নিশিন্দারা ইউনিয়নের দশটিকায় ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত সোনাতলা-গাবতলী সড়কে  ট্রাকের চাপায় পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই মোটরসাইকেল আরোহী মৃত্যু হয়েছে

সরকার আসে, সরকার যায় তাদের নেতাকর্মী প্রতিশ্রুতি দেয়- সোনাতলায় ৩শ’ ফুট কাঁচা রাস্তা কাঁচাই রয়ে গেল

সরকার আসে, সরকার যায় তাদের নেতাকর্মী প্রতিশ্রুতি দেয়- সোনাতলায় ৩শ’ ফুট কাঁচা রাস্তা কাঁচাই রয়ে গেল

বদিউদ-জ্জামান মুকুল,ষ্টাফ রিপোর্টারঃ সরকার আসে, সরকার যায়। তাদের নেতাকর্মীরা প্রতিশ্রুতি দেয়। এভাবেই স্বাধীনতার দীর্ঘ প্রায় ৪৯ বছর কেটে গেলেও বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার জোড়গাছা ইউনিয়নের পোড়াপাইকর এলাকায় ৩শ’ ফুট কাঁচা রাস্তা আজও পাকা হয়নি। ফলে এলাকাবাসীদের দূর্ভোগ চরমে উঠেছে। সামান্য বৃষ্টিতে ওই ৩শ’ ফুট সড়কে হাঁটু পানি জমে থাকে।
বগুড়ার সোনাতলা উপজেলা সদর থেকে প্রায় ১৪/১৫ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থিত জোড়গাছা ইউনিয়নের পোড়াপাইকর গ্রাম। ওই গ্রামে প্রায় সাড়ে ৪ হাজার মানুষের বসবাস। অপরদিকে ওই গ্রামে ভোটারসংখ্যা প্রায় আড়াই হাজার। শিক্ষা দীক্ষায় ওই গ্রামের বাসিন্দারা পিছিয়ে না থাকলেও এখনও উন্নয়নে পিছিয়ে রয়েছে গ্রামটি। পোড়াপাইকর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে গোলাম মোস্তফা মাষ্টারের বাড়ি পর্যন্ত ৩শ’ ফুট কাঁচা রাস্তাটি বিষয়ে স্বাধীনতার পর বিভিন্ন সরকারের শাসনামলে তাদের নেতাকর্মী ও এমপিরা রাস্তাটি পাকাকরণে একাধিকবার প্রতিশ্রুতি দিলেও আজও ওই ৩শ’ ফুট রাস্তাটি কাঁচাই রয়ে গেছে।
এ বিষয়ে ওই গ্রামের বাসিন্দা আবু সাঈদ মাষ্টার, লুৎফর রহমান, সাজু মিয়া জানান, সংশ্লিষ্ট গ্রামের একজন নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি থাকার পরেও ওই রাস্তায় এক ইঞ্চি পরিমাণ মাটিও কাটা হয়নি। রাস্তা পাকাকরণ তো দূরের কথা। সামান্য বৃষ্টিতে হাঁটু পানি জমে। আবার সারাবছর কর্দমাক্ত থাকে। স্যাঁতস্যাঁতে ওই সড়কটি খালি পায়ে চলাচল করা যায়না। তারা আরও জানান, ওই রাস্তার কারণে এলাকার ছেলেমেয়েদের ভালো জায়গায় বিয়ের প্রস্তাব আসেনা।
এ বিষয়ে ওই ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি গোলাম আজম টিপু জানান, ইতিপূর্বে রাস্তাটি পাকাকরণের জন্য উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। জনৈক এক ব্যক্তির রাস্তা সংলগ্ন জায়গা ছেড়ে না দেওয়ায় রাস্তাটি পাকাকরণ সম্ভব হয়নি।
এ বিষয়ে স্থানীয় জোড়গাছা ইউপি চেয়ারম্যান রোস্তম আলী মন্ডল জানান, রাস্তাটি জনগুরুত্বপূর্ণ। তবে ওই গ্রামের দু’পাশ দিয়ে পাকা সড়ক রয়েছে। গ্রামবাসীর যাতায়াতের জন্য রাস্তাটি দ্রæত সময়ের মধ্যে পাকাকরণের বিষয়ে পদক্ষেপ নিবেন বলেও জানান।
এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী রাশেদ ইমরান জানান, এ বিষয়ে কেউ তাকে অবগত করেননি। প্রস্তাব পাওয়া গেলে ৩শ’ ফুট রাস্তাটি প্রথমে মাটি কাটা ও পরবর্তী অর্থ বছরে পাকাকরণের উদ্যোগ নেওয়া হবে।

শেয়ারকরুন: