শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:৪৬ পূর্বাহ্ন

নোটিশ
আমাদের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম.........
শিরোনাম >>>
স্বাধীনতা সম্পর্কে জানতে হলে বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী পড়তে হবে : মজিবর রহমান মজনু গাবতলীতে বণ্যপ্রাণী সংরক্ষণ বিষয়ে সচেতনতামূলক সভা গাবতলীতে পৌর বিএনপির দোয়া অনুষ্ঠিত এলাকার উন্নয়ন ও কল্যানমুলক কাজ করতে চশমা মার্কায় ভোট দিন- মাওঃ সাইফুল সোনাতলায় শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ ভোরের দর্পণ পত্রিকার ২১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গাবতলীতে কেক কর্তন গাবতলীতে আগুনে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ঢেউটিন ও কম্বল বিতরণ সোনাতলা পৌরসভার মেয়র ৩ মাসেও চেয়ারে বসতে পারেনি গাবতলীর সোনারায়ে মোটরসাইকেল মার্কায় ভোট চেয়ে প্রার্থী আজাদুলের গণসংযোগ গাবতলীর নেপালতলী ইউনিয়নে আইয়ুব মাস্টারের গণসংযোগ

সাংবাদিক পরিবারের উপর হামলা থানায় অভিযোগের ৯দিন পরেও নেই কোন ব্যবস্থা

সাংবাদিক পরিবারের উপর হামলা থানায় অভিযোগের ৯দিন পরেও নেই কোন ব্যবস্থা

সেলিম রেজা শেরপুর(বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার শেরপুরে সাংবাদিক পরিবারের উপর হামলা, থানায় অভিযোগের ৯ দিন পেরিয়ে গেলেও নেই কোন ব্যবস্থা। জাতীয় দৈনিক মাতৃজগত পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার মো: আমান উল্লাহ আমান এর পরিবারের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে, গত শুক্রবার (৬ নভেম্বর ২০২০) সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে।
ঘটনা সুত্রে জানা যায়, এলকার প্রভাবশালী গাঁজা ব্যবসায়ী মিলন মন্ডল নামের এক মাদক ব্যবসায়ী তার অন্যান্য সঙ্গীদের সহ প্রায় প্রতিদিন তার বাড়ির পাশে মাদক সেবনের আড্ডা বসায় এবং মাদক কেনাবেচা করে। মাদক ব্যবসায়ী মিলন মন্ডল শেরপুর উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের আশগ্রামের দশের মন্ডলের ছেলে। মিলনের মাদক ব্যবসার কারণে এলাকার অনেক যুবক মাদকাসক্তে আশক্ত হতে দেখে সাংবাদিক আমান উল্লাহ আমান বার বার মাদক ব্যবসায়ী মিলন মন্ডল কে সতর্ক করে দেন। কিন্তু মাদক ব্যবসায়ী মিলন মন্ডল এর মাদক ব্যবসায় বাধা দেওয়ায় আমানুল্লাহ আমান এবং মিলন মন্ডল এর মধ্যে কথাকাটি হয়। যার ফলশ্রুতিতে সাংবাদিক আমান উল্লাহ আমান এর পরিবারের উপর এই সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় গত ০৬ নভেম্বর সাংবাদিক আমান উল্লাহ আমানের স্ত্রী মোছা: হোসনেয়ারা বেগম থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন।
লিখিত অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, বগুড়ার শেরপুর উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের আশগ্রামের মো: মিলন এর স্ত্রী মোছা: হাসিনা বেগম, আ: রউফ এর স্ত্রী তানজিলা বেগম, মো: মিলনের মেয়ে উম্মে হাবিবা দীর্ঘ্য দিন ধরে নেশা জাতীয় দ্রব্য বিক্রি করে। বাড়িতে আজে বাজে লোক আসা যাওয়া করে এতে আমান উল্লাহ এর পরিবার নিষেধ করলে মাদক ব্যবসায়ীরা হোসনেয়ারা কে অকথ্য ভাষায় গালি গালাজ ও বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি ও হুমকি দিয়ে আসিতে থাকে। এরই একপর্যায়ে গত ০৬ই নভেম্বর ২০২০ ইং তারিখে অনুমান সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে হাসকে কেন্দ্র করে তারা অকথ্য ভাষায় গালি গালাজ করতে থাকে। তখন হোসনেয়ারা বেগম তাদেরকে অকারনে বোকা ঝোকা করতে নিষেধ করেন । উল্লাহ আমান এর পরিবারের উপর সৃষ্ট ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে প্রসাশনের যাথাযোথ হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।
এ বিষয়ে শেরপুর থানার ওসি (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ এর সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, এবিষয়ে আমার জানা নেই।

শেয়ারকরুন: