শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৯:১৩ পূর্বাহ্ন

নোটিশ
আমাদের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম.........
শিরোনাম >>>
স্বাধীনতা সম্পর্কে জানতে হলে বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী পড়তে হবে : মজিবর রহমান মজনু গাবতলীতে বণ্যপ্রাণী সংরক্ষণ বিষয়ে সচেতনতামূলক সভা গাবতলীতে পৌর বিএনপির দোয়া অনুষ্ঠিত এলাকার উন্নয়ন ও কল্যানমুলক কাজ করতে চশমা মার্কায় ভোট দিন- মাওঃ সাইফুল সোনাতলায় শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ ভোরের দর্পণ পত্রিকার ২১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গাবতলীতে কেক কর্তন গাবতলীতে আগুনে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ঢেউটিন ও কম্বল বিতরণ সোনাতলা পৌরসভার মেয়র ৩ মাসেও চেয়ারে বসতে পারেনি গাবতলীর সোনারায়ে মোটরসাইকেল মার্কায় ভোট চেয়ে প্রার্থী আজাদুলের গণসংযোগ গাবতলীর নেপালতলী ইউনিয়নে আইয়ুব মাস্টারের গণসংযোগ

সোনাতলার সৈয়দ আহমদ কলেজ বটতলা শিক্ষানগরী এলাকায় সামান্য বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা

সোনাতলার সৈয়দ আহমদ কলেজ বটতলা শিক্ষানগরী এলাকায় সামান্য বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা

বদিউদ-জ্জামান মুকুল,ষ্টাফ রিপোর্টারঃ বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার সৈয়দ আহম্মদ কলেজ ষ্টেশন একটি শিক্ষা নগরী এলাকা। সামান্য বৃষ্টিতে ওই এলাকার জনগুরুত্বপূর্ণ বটতলা ভায়া-সুখানপুকুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় সড়কটিতে পানি জমে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। এতে করে পথচারী সহ সকল প্রকার যান চলাচলে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হচ্ছে।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, বগুড়ার সোনাতলা উপজেলা সদর থেকে প্রায় ১৩ কিলোমিটার দক্ষিণে উপজেলার শেষ প্রান্তে অবস্থিত সৈয়দ আহম্মদ কলেজ বটতলা।

ওই এলাকার জনগুরুত্বপূর্ণ বটতলা থেকে সুখানপুকুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় হয়ে সাবেক প্রাদেশিক পরিষদের এমএলএ মরহুম সৈয়দ আহম্মদের বাড়ি সড়কটি সামান্য বৃষ্টিতে হাঁটু পানি জমে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। গত প্রায় ৪/৫ বছর পূর্বে পানি নিষ্কাশনের জন্য উপজেলা পরিষদ থেকে প্রায় দেড় লাখ টাকা ব্যয়ে একটি ড্রেন নির্মাণ করা হলেও তা কাজে আসেনি। বরং ওই ড্রেন নির্মাণ করার মাত্র ৩/৪ মাসের মাথায় ভরাট হয়ে যায়। ফলে ভরাট ড্রেনে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় পানি জমে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়।
এ বিষয়ে ওই এলাকার বাসিন্দা লাল মিয়া প্রামানিক, ব্যবসায়ী রেজাউল করিম, ডাঃ হুমায়ন কবির ইমরান, স্কুল শিক্ষক অলিউল্লাহ, নাছিমা নাসরিন জানান, এটি একটি জনগুরুত্বপূর্ণ সড়ক। ওই সড়কের আশপাশে অসংখ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। প্রতিদিন ওই সড়ক দিয়ে বিভিন্ন শ্রেণি ও পেশার মানুষ যাতায়াত করেন। এছাড়াও শিক্ষার্থীরা ওই সড়ক দিয়ে যাতায়াত করতে গিয়ে পা পিছলে গিয়ে দূর্ঘটনার স্বীকার হয়। এছাড়াও মোটর সাইকেল ও ভ্যান গাড়ি উল্টে গিয়ে নানা ধরনের দূর্ঘটনার স্বীকার হতে হচ্ছে। অতি দ্রæত ওই স্থানে মাটি ভরাট করে কার্পেটিং করার দাবি জানান।
এ বিষয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এড. মিনহাদুজ্জামান লীটন জানান, এটি একটি জনগুরুত্বপূর্ণ সড়ক। এটি দ্রæত সময়ের মধ্যে সংষ্কার করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করবো।
এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ রাশেদ ইমরান জানান, আমিও ওই পথ দিয়ে প্রতিদিন যাতায়াত করতে গিয়ে ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছি। এমনকি ওই পথ দিয়ে চলাচল করতে গিয়ে কাঁদা পানি লেগে প্যান্ট অপরিষ্কার হয়ে যায়। তিনি আরও জানান, এ অর্থ বছরে সংষ্কার করা সম্ভব নয়। আগামী অর্থ বছরে সংস্কার করার উদ্যোগ নেওয়া হবে।
উল্লেখ্য, সংশ্লিষ্ট এলাকায় মাস্টার্স পাঠদানকারী কলেজ সহ ৩১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এছাড়াও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, রেলষ্টেশন, সৈয়দ আহম্মদ কলেজ হাট, ব্যাংক বীমা রয়েছে। এছাড়াও অসংখ্য বেসরকারী এনজিও প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

শেয়ারকরুন: