রবিবার, ২০ Jun ২০২১, ০১:৪১ অপরাহ্ন

নোটিশ
আমাদের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম.........
শিরোনাম >>>
মহিলা ক্রিকেটদলের অধিনায়ককে গাবতলীতে ফুলেল শুভেচ্ছা আদমদীঘিতে বিলুপ্তীর পথে ঐতিহ্যবাহী বাঁশ শিল্প কাহালুতে ২য় গর্যায় ৩০ট গৃহহীন পরিবার পাচ্ছে দূর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডে পদ পেলেন পত্নীতলার রুবাইত হাসান সান্তাহারে ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার কাহালু পৌর মেয়রকে সচিবালয়ে প্রবেশের কার্ড করে নিয়ে দিলেন এম পি মোশারফ হোসেন কাহালুতে চোর সন্দেহে যুবককে বাড়ী থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন কাহালুতে ৫ জুয়াড়ী আটক ডাঃ জোবাইদা’র জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে গাবতলীতে ছাত্রদলের দোয়া মাহফিল ও খাবার বিতরণ গাবতলীর বাগবাড়ীতে মসজিদ নির্মাণ কাজের উদ্ধোধন করলেন ডাঃ পাভেল

সোনাতলায় খাল ও বিলের মুখ ভরাট করায় ৩শ বিঘা জমিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি

সোনাতলায় খাল ও বিলের মুখ ভরাট করায় ৩শ বিঘা জমিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি

বদিউদ-জ্জামান মুকুল,ষ্টাফ রিপোর্টারঃ বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার জোড়গাছা ইউনিয়নের সোনাকানিয়া এলাকায় ১টি খাল ও ৪টি বিলের মুখ ভরাট করায় ওই এলাকায় প্রায় ৩শ’ বিঘা ফসলী জমিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। ফলে ওই উপজেলার কৃষি ফসল উৎপাদন ব্যাহত হওয়ার আশংকা করা হচ্ছে।
বগুড়ার সোনাতলা উপজেলা সদর থেকে প্রায় ১২/১৩ কিলোমিটার দক্ষিণে জোড়গাছা ইউনিয়নের উত্তর বয়ড়া, উত্তর চরপাড়া ও দক্ষিণ সোনাকানিয়া গ্রামের অবস্থান। ওই তিনটি গ্রামে প্রায় ৪৫ হাজার মানুষের বসবাস। যাতের অধিকাংশ সরাসরি কৃষি কাজের সাথে জড়িত। সোনাকানিয়া গুড়াভাঙ্গা বাঙালী নদী থেকে একটি খালের উৎপত্তি হয়ে সোনাকানিয়া গ্রামের মধ্যে দিয়ে খালটি গ্রামের দক্ষিণ পাশে গিয়ে সৌলগাড়ী বিল ও বাতানের বিলে মিলিত হয়েছে। সম্প্রতি একটি মহল সোনাকানিয়া গ্রামের দক্ষিণ পাশে ওই খালটির মুখ বন্ধ করে দেয়। এতে করে ওই খালের পানি প্রবাহ বন্ধ হয়ে যায়। এছাড়াও পার্শ্ববর্তী বেড়ের ঘাটের বিল, নয় আনার বিল, মৌলগাড়ি বিল ও বাতানের বিলের মিলনস্থল ভরাট করে দেওয়ায় ওই এলাকার প্রায় ৩শ বিঘা জমিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে।
স্থানীয় সোনাকানিয়া গ্রামের বাসিন্দারা জানান, কতিপয় প্রভাবশালী ব্যক্তি সোনাকানিয়া খালের মুখের পাশাপাশি ওই তিনটি বিলের মিলনস্থলে মাটি দিয়ে ভরাট করে মাছ চাষ করায় কৃষকের ফসলী জমিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। এমনকি কৃষক আসন্ন ইরি-বোরো মৌসুমের বীজতলা তৈরির জন্য ব্যবহৃত খাল ও বিলের জায়গা ব্যবহার করতে পারছে না।
এ বিষয়ে স্থানীয় জোড়গাছা ইউপি চেয়ারম্যান রোস্তম আলী মন্ডল জানান, আবহমানকাল থেকে সোনাকানিয়া গ্রামের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হওয়া খালে মানুষ ও গবাদি পশু গোসল ও কৃষি ফসলে সেচ সুবিধা দিয়ে আসছিল। খালটির মুখ বন্ধ করায় খালটি এখন কচুরি পানায় পরিপূর্ণ হয়েছে। ফলে ওই খালের পানি ব্যবহার করার অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এমনকি ওই বিলের পানিতে মশা মাছির উপদ্রব বেড়ে গেছে। মশা-মাছির কামড়ে খালের দুপাড়ের মানুষ মশারি ছাড়া রাতে ঘরে ঘুমাতে পারছে না। এমনকি ওই পানিতে গোসল করতে গিয়ে স্থানীয় এলাকাবাসী বিভিন্ন ধরনের চর্ম রোগে আক্রান্ত হচ্ছে।
এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ মাসুদ আহমেদ জানান, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১ ইঞ্চি পরিমাণ কৃষি জমিও যাতে পড়ে না থাকে এজন্য নির্দেশনা দিলেও সোনাকানিয়া এলাকায় প্রায় ৩শ বিঘা আবাদী জমি জলাশয়ে পরিনত হয়েছে। এতে করে সংশ্লিষ্ট উপজেলায় কৃষি উৎপাদন ব্যাহত হওয়ার আশংকা রয়েছে।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া আফরিন জানান, এ বিষয়ে স্থানীয় এলাকাবাসী একটি অভিযোগ তার দপ্তরে জমা দিয়েছেন। কৃষকদের কথা বিবেচনা করে ঘটনাস্থলে গিয়ে খালটির মুখ দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

শেয়ারকরুন: