বৃহস্পতিবার, ১৭ Jun ২০২১, ০৩:২৮ পূর্বাহ্ন

নোটিশ
আমাদের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম.........
শিরোনাম >>>
বগুড়ায় আবু ত্ব-হা আদনান নিখোঁজের প্রতিবাদে মানববন্ধন আজম খাঁনের স্ত্রী’র সুস্থতা কামনায় গাবতলী উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের দোয়া মাহফিল আন্তনগর লালমনি ও রংপুর ট্রেনের টিকিট সরবরাহ না থাকায় যাত্রীদের বিড়ম্বনা স্বীকার হজ্জ ও ওমরাহ পালন করতে গিয়ে কেউ যেন হয়রানির স্বীকার না হয় সে বিষয়ে জাতীয় সংসদে কথা বললেন–এম পি মোশারফ হোসেন কাহালুতে ৫টি গাঁজার গাছ সহ এক ব্যক্তি আটক মরহুম আজম খানের সহধর্মিনীর সুস্থ্যতা কামনায় গাবতলীতে মহিলা আ’লীগের উদ্যোগে দোয়া অনুষ্ঠিত তিন মাসে কাহালু পৌরবাসীকে চমক দেখাতে শুরু করেছেন মেয়র আলহাজ্ব আব্দুল মান্নান নিশিন্দারা ইউনিয়ন বিএনপির উদ্যোগে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত ১২বছরে ঈদগা মাঠে’র হিসাব না দেয়ায় গাবতলীতে ইঞ্জিনিয়ার কালামের বিরুদ্ধে ফুসে উঠেছে মুসুল্লীরা মহাস্থান মাংস বাজারে দাম ও ওজনে আপত্তি না থাকলেও পরিবেশ নিয়ে অভিযোগ

সোনাতলায় চিকিৎসা নিতে এসে ডাক্তারের কলমের আঘাতে ৫ বছরের শিশু আহত

সোনাতলায় চিকিৎসা নিতে এসে ডাক্তারের কলমের আঘাতে ৫ বছরের শিশু আহত

রিমন আহম্মেদ বিকাশঃ বগুড়ার সোনাতলায় হাসপাতালে মায়ের সাথে চিকিৎসা নিতে আসা ৫ বছরের এক অবুঝ দুষ্টামী করার অপরাধে এক এমবিবিএস ডাক্তারের কলমের আঘাতে আহত হয়েছে।

আহত শিশু জুবায়েদ হোসেন গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার কামালের পাড়া ইউনিয়নের শিমুলবাড়িয়া গ্রামের জাকির হোসেন এর ছেলে। শিশুটির মায়ের নাম আসমা আকতার সুমা। এঘটনায় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা বরাবরে অভিযোগ দায়ের করেছে জুবায়েদ এর নানা জাহের আলী।

১১ মে সকাল ১১টায় সাঘাটা উপজেলার কামালেপাড়ার ইউনিয়নের শিমুলবাড়িয়া গ্রামের মৃত সিফাত আলী আকন্দের মেয়ে আসমা আকতার সুমা ও নাতী জুবায়েদ হোসেনকে নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বহি:বিভাগে চিকিৎসার জন্য অপেক্ষা করছিলেন। পাশে থেকে ছেলে জুবায়েদ একটু দুরে ডাক্তারের রুমে দাড়িয়ে ছিল। হঠাৎ আচমক ভাবে হাসপাতালের কর্মরত মেডিক্যাল অফিসার ডাক্তার রাজিয়া সুলতানা রুম থেকে বেড়িয়ে এসে জুবায়েদ (৫) কে কলম দিয়ে মাথায় কয়েকটি খোচা মেরে রক্তাক্ত জখম করেন। জুবায়েদের চিৎকারে তার মা সুমা ও আশে পাশে চিকিৎসা নিতে আসা লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে। পরে বিষয়টি হাসপাতালের কর্মকর্তা কর্মচারীদের মাঝে ছড়িয়ে পড়লে ডাক্তার রাজিয়া সুলতানা ও জুবায়েদের মাসহ আত্মীয় স্বজনদের মধ্যে কথা কাটাকাটির ঘটে। এ বিষয়ে ডাঃ রাজিয়া সুলতানাকে শিশুটিকে কলম দিয়ে আঘাত করার কথা বললে তিনি খোচা মারার কথা অস্বীকার করে বলেন আমার ছেলেকে মেরেছে, আমার ছেলেও তাকে মেরেছে। এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডাক্তার শাথিলের সাথে কথা বললে তিনি অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ঘটনাটি খুবই দুঃখ জনক, শিশুটির আমরা চিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহন করেছি। তিনি আরও জানান, ডাক্তার রাজিয়া সুলতানার এর আগেও অনেক ঘটনাই ঘটিয়েছে। যা আমরা উদ্ধর্তন কর্মকর্তাকে অবগত করেছি।

আজকের বিষয়টিও উর্ধ্বতন কর্মকর্তা বরাবরে লিখিত ভাবে জানানো হয়েছে।

শেয়ারকরুন: