শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৩০ অপরাহ্ন

নোটিশ
আমাদের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম.........
শিরোনাম >>>
জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিতএম এ মতিন,কাহালু (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ গাবতলীতে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের কমিটি গঠন প্রধান অতিথি ইঞ্জিঃ ইশরাক হোসেন গাবতলী থানা ছাত্রদলের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত সোনাতলায় জোরপুর্বক জমিদখলের চেষ্টা অতঃপর বাড়িঘর ভাংচুর, লুটপাটসহ মারধরে আহত-৩ দেহের একটু রক্ত দিলে যদি বাঁচে একটি প্রাণ ধন্য তোমার পিতা মাতা মহৎ তোমার দান সোনাতলায় ছাত্রদলের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত সোনাতলায় পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রতিযোগিতার মাঠে চলছে প্রার্থীদের গনসংযোগ বগুড়া প্রেসক্লাবের সদস্য. দৈনিক চাঁদনী বাজার পত্রিকার সাবেক সম্পাদক মাকছুদুরের ইন্তেকাল গাবতলীর দক্ষিণপাড়া ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের কমিটি ঘোষনা সুখানপুকুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড যুবলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত

সোনাতলায় বিরোধপূর্ণ একটি বাড়িতে পুলিশের অবস্থান, সতর্কীকরণ নোটিশ

সোনাতলায় বিরোধপূর্ণ একটি বাড়িতে পুলিশের অবস্থান, সতর্কীকরণ নোটিশ

বদিউদ-জ্জামান মুকুল,ষ্টাফ রিপোর্টারঃ বগুড়ার সোনাতলায় বিরোধপূর্ণ একটি বাড়িতে দু’পক্ষের সংঘর্ষ ও সংঘাত এড়াতে সতর্কীকরণ নোটিশ টানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

পাশাপাশি পুলিশ ওই বাড়িতে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত অবস্থান করছে।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার জোড়গাছা ইউনিয়নের সোনাকানিয়া গ্রামে মৃত আবুল কাশেমের ছেলে মোঃ শহিদুল ইসলাম (৪০) এর সাথে একই গ্রামের মৃত ফজলুল হক মন্ডলের ছেলে মোঃ আব্দুল হালিম ওরফে হালিম মাষ্টারের জোড়গাছা মৌজার ৯২ শতক জমি নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি প্রায় দেড় ডজন মামলা রয়েছে। এরই এক পর্যায়ে ১০ নভেম্বর ২০২০ তারিখে দুপক্ষের মধ্যে জায়গা দখলকে কেন্দ্র করে মারপিটের ঘটনা ঘটে। সেই মারপিটে আহত সফুরা বেওয়া (৬৫) নামের এক বৃদ্ধা চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতাল মারা যায়। এ বিষয়ে ওই বৃদ্ধার ছেলে বাদি হয়ে পরের দিন ১৯ জনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করে। এরপর আব্দুল হালিম মাস্টার ও তার লোকজন পুলিশি গ্রেফতার এড়াতে পালিয়ে থাকে। পরবর্তীতে নিম্ন ও উচ্চ আদালত থেকে স্থায়ী জামিন নিয়ে এলাকায় ফিরে এসে ওই বিরোধপূর্ণ বাড়িতে ওঠার চেষ্টা চালায়। এরপর পুলিশ ওই বিরোধপূর্ণ বাড়িতে কোন পক্ষই উঠতে কিংবা অবস্থান করতে না পারে এজন্য সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়াও রাতে গ্রাম্য পুলিশকে রাখা হয়েছে ওই বাড়ি পাহারা দেওয়ার জন্য।
এ বিষয়ে এলাকাবাসী জানান, দীর্ঘদিন যাবত ওই জায়গা নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে বিরোধ চলে আসছে। এলাকাবাসী আরও জানান, একটি পক্ষ বাড়ি করার চেষ্টা করলেও ওই জমিতে আরেকটি পক্ষ সফুরা হত্যার পরপরই তরিঘড়ি করে সীমানা প্রাচীর ও ঘরবাড়ি নির্মাণ করে।
এ বিষয়ে আব্দুল হালিম মাষ্টার জানান, তার পৈত্রিক সম্পত্তিতে গড়া বাড়িতে ওঠার চেষ্টা করলে পুলিশ তাতে বাঁধা দেয়।
এ বিষয়ে শহিদুল ইসলাম জানান, জমিটি আমার কবলাকৃত সম্পত্তি। প্রতিপক্ষের লোকজন আমার বিরুদ্ধে আকস্মিক চাঁদাবাজি মামলা দায়ের করে। এরপর বাড়িটি দখলের চেষ্টা করে।
এ বিষয়ে সোনাতলা থানার ওসি রেজাউল করিম রেজার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বিরোধপূর্ণ জায়গার উপর নির্মিত বাড়িতে কোন পক্ষই যাতে উঠতে না পারে এজন্য পুলিশ মোতায়েনের পাশাপাশি বাড়িটি তালাবদ্ধ করে রাখা হয়েছে। এমনকি মারামারি ও সংঘাত এড়াতে সতর্কীকরণ নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

শেয়ারকরুন: