বৃহস্পতিবার, ০৫ অগাস্ট ২০২১, ০৪:৪৭ অপরাহ্ন

নোটিশ
আমাদের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম.........
শিরোনাম >>>
শাজাহানপুরের খোট্রাপাড়া’য় জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় সাজ্জাদুজ্জামান জয়ের পরিচালনায় করোনা হেলথ ক্যাম্প অনুষ্ঠিত গাবতলীতে পত্রিকা বিক্রেতাকে হত্যার হুমকি; থানায় অভিযোগ গাবতলীতে স্কুল ছাত্রীকে ইভটিজিং থানায় ৩ জনের নামে অভিযোগ গাবতলীতে এক অন্ধ’র বাড়ি পুড়েছে খোলা আকাশের নিচে তাদের বসবাস সরকার আসে, সরকার যায় তাদের নেতাকর্মী প্রতিশ্রুতি দেয়- সোনাতলায় ৩শ’ ফুট কাঁচা রাস্তা কাঁচাই রয়ে গেল জনপ্রতিনিধিকে খুশি করতে না পারায়-৭৯ বছর বয়সেও বয়স্ক ভাতা ভাগ্য জোটেনি সুমতি রানীর কাহালুতে ট্রাক চাপায় মোটর সাইকেল চালক নিহত কাহালুতে করোনার টিকাদান কর্মসূচী সফল করার লক্ষ্যে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত লাখো মানুষের চলাচলে চরম দুর্ভোগ- গাবতলী-চৌকিরঘাট সড়কে অসংখ্যস্থানে গর্তের সৃষ্টি গাবতলীর কাগইলে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় সাজ্জাদুজ্জামান জয়ের পরিচালনায় করোনা হেলথ ক্যাম্প অনুষ্ঠিত

সোনাতলায় ব্যবসায়ীর ভোঁ দৌড়

সোনাতলায় ব্যবসায়ীর ভোঁ দৌড়

বদিউদ-জ্জামান মুকুল,ষ্টাফ রিপোর্টারঃ বগুড়ার সোনাতলায় সেনাবাহিনী ও প্রশাসনের গাড়ি দেখেই দোকানের মালিক ক্যাশ বাক্সের চাবি রেখেই ভোঁ দৌড় দেয়। এ বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইউএনও সাদিয়া আফরিন একটি ট্যাটাস দিয়েছেন।

সেখানে তিনি লিখেছেন প্রতিটা দিন শুরু হয় চরম ব্যস্ততা আর শেষ হয় তার থেকেও বেশি ক্লান্তি নিয়ে। আমরা অনেকেই শুধু রাষ্ট্র যন্ত্রের সমালোচনা করছি। প্রশাসন থেকে শুরু করে রাষ্ট্রের প্রতিটি বাহিনী, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ, দিন রাত এক করে কাজ করছে তবুও আমাদের সফলতার পথ কঠিন হয়ে যায়। আমাদের দেখে দোকানের মালিকরা সাটার লাগিয়ে দেশ প্রেমিক দোকানদার ও ক্রেতা উভয়ই চলে গেছেন। যাওয়ার সময় মোবাইল এমনকি ক্যাশ ডয়ারের চাবিটাও নেওয়ার সময় পাননি। কিন্তুু এভাবে আর কতদিন আমাদের সাথে লুকোচুরি খেলতে গিয়ে নিজের জীবন, পরিবার, সমাজ তথা রাষ্ট্রের সাথে লুকোচুরি খেলবেন।
সরকার ঘোষিত ১৪ দিনের কঠোর লক ডাউন চলাকালে বগুড়ার সোনাতলার বিভিন্ন মার্কেটের দোকান মালিকরা প্রশাসনের সাথে লুকোচুরি খেলছে। আর এতে করে তাদের নিজের জীবন, পরিবার, সমাজ তথা রাষ্ট্রের সাথে তারা বিশ্বাস ঘাতকতা করছেন।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি আক্ষেপ (ট্যাটার্স) দিয়ে ওই উপজেলাবাসীকে সতর্ক করার আহবান জানিয়েছেন।
উল্লেখ্য, বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার আনাচে কানাচে প্রশাসনের টহল অব্যাহত থাকলেও তা মূলত এক শ্রেণির মুনাফালোভী ব্যবসায়ীদের কারণে ফলপ্রসু হচ্ছে না। তারা প্রশাসনের গাড়ি দেখলেই দোকানের সাটার নেমে ফেলে। আর প্রশাসন চলে গেলেই দোকান খুলে নির্বিগ্ন তাদের ব্যবসা চালিয়ে যায়।

শেয়ারকরুন: