শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৯:০৫ পূর্বাহ্ন

নোটিশ
আমাদের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম.........
শিরোনাম >>>
স্বাধীনতা সম্পর্কে জানতে হলে বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী পড়তে হবে : মজিবর রহমান মজনু গাবতলীতে বণ্যপ্রাণী সংরক্ষণ বিষয়ে সচেতনতামূলক সভা গাবতলীতে পৌর বিএনপির দোয়া অনুষ্ঠিত এলাকার উন্নয়ন ও কল্যানমুলক কাজ করতে চশমা মার্কায় ভোট দিন- মাওঃ সাইফুল সোনাতলায় শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ ভোরের দর্পণ পত্রিকার ২১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গাবতলীতে কেক কর্তন গাবতলীতে আগুনে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ঢেউটিন ও কম্বল বিতরণ সোনাতলা পৌরসভার মেয়র ৩ মাসেও চেয়ারে বসতে পারেনি গাবতলীর সোনারায়ে মোটরসাইকেল মার্কায় ভোট চেয়ে প্রার্থী আজাদুলের গণসংযোগ গাবতলীর নেপালতলী ইউনিয়নে আইয়ুব মাস্টারের গণসংযোগ

সোনাতলায় মধুপুর ইউনিয়নের সফল চেয়ারম্যান অসীম কুমার জৈন নতুন

সোনাতলায় মধুপুর ইউনিয়নের সফল চেয়ারম্যান অসীম কুমার জৈন নতুন

রিমন আহম্মেদ বিকাশঃ বগুড়ার সেনাতলা উপজেলার মধুপুর ইউনিয়ন পরিষদের অসীম কুমার জৈন নতুন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে ইউনিয়নে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ অব্যাহত রেখে উলে­খযোগ্য সাফল্য অর্জন করেছেন। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সমর্থিত, যুবসমাজের বলিষ্ঠ কন্ঠস্বর, ইউনিয়নবাসীর প্রিয়মুখ অসীম কুমার জৈন নতুন ।
যুব সমাজের মনিকোঠায় তিনি অপ্রতিরোধ্য চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত, যার পরিপ্রেক্ষিতে তিনি সুন্দর ও সুষ্ঠুভাবে ইউনিয়ন এলাকার উন্নয়নে সরকার ঘোষিত প্রতিটি কার্যক্রম সুন্দর ও সফলভাবে সম্পাদন করতে সক্ষম। চেয়ারম্যান শুধু নিজ এলাকায় নয়, মধুপুর ইউনিয়নের সর্বসাধারনের কাছে দলমত নির্বিশেষে এক ব্যাপক গ্রহণযোগ্যতা সম্পন্ন ব্যক্তি হিসেবে প্রতীয়মান তিনি। চেয়ারম্যান জনসেবা প্রদানের মাধ্যমে একজন সফল জনবান্ধব চেয়ারম্যান হিসেবে এলাকায় অধিষ্ঠিত। এলাকার সার্বিক উন্নয়নে নিজেকে উৎসর্গ করতে চান জনবান্ধব ও বিচক্ষণ এই চেয়ারম্যান। অসীম কুমার জৈন নতুন এলাকার জনসমর্থনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হন। প্রথমবারের মতো বিপুল জনসমর্থনে চেয়ারম্যন নির্বাচিত হন তিনি।
এলাকার সার্বিক উন্নয়নে নিজেকে উৎসর্গ করতে চান জনবান্ধব ও বিচক্ষণ এই চেয়ারম্যান। ইউনিয়নের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে তিনি এই প্রতিবেদক কে বলেন, আমাদের ইউনিয়নটি একটি আদর্শ ইউনিয়ন। ইউনিয়নে নেই কোনো বাল্যবিবাহ, ইভটিজিং এমনকি জঙ্গীবাদ। ইউনিয়নে বসবাসরত অনেকের সাথে কথা বলে জানা যায় তাদের চেয়ারম্যান একজন সদালাপী, পরিশ্রমী এবং এলাকার উন্নয়নে যথেষ্ট নিবেদিত।
মধুপুর ইউনিয়নে বর্তমান শিক্ষার হার বেশ ভালো এবং প্রতি বছরই শিক্ষার হার আনুপাতিক হারে বাড়ছে। ইউনিয়নটিতে শিক্ষা ব্যবস্থা, স্বাস্থ্যসেবা থেকে শুরু করে সরকার ঘোষিত সকল প্রকার সুবিধাদি পাচ্ছেন ইউনিয়নে বসবাসকৃত সর্বসাধারণ। প্রতিমাসে মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়, যেখানে এলাকার সার্বিক উন্নয়নে নানা বিষয়ে আলোচনা হয়ে থাকে। বিশেষ করে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন ও বাল্যবিবাহ বিষয়ে জনসচেতনতা বৃদ্ধি, ইভটিজিং বন্ধে কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহনে প্রয়োজনীয় ভূমিকা পালন করেন ইউপি চেয়ারম্যান।
এক অনুসন্ধানে ইউনিয়নবাসীর অনেকই জানান, মধুপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অসীম কুমার জৈন নতুন দলমত নির্বিশেষে সকলের কাছে বড়ই আস্থাভাজন। জনগনের যে কোনো সমস্যা তিনি মনোযোগ দিয়ে শোনেন এবং সমাধানের চেষ্টা করেন। যে কোনো ধরনের সরকারী অনুদান সঠিকভাবে বণ্টন করেন। নতুন চেয়ারম্যানের আমলে মসজিদ-মন্দির,শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও রাস্তা-ঘাটসহ সকল ক্ষেত্রেই উন্নয়ন হয়েছে। তাই ইউনিয়নবাসীর আশা আগামী ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ড তাদের প্রিয় দাদা নতুনকে আবারও মনোয়ন দিয়ে নৌকা কান্ডারীর দায়িত্ব দেবেন।
এক সাক্ষাৎকারে সফল, জনবান্ধব ও আপোষহীন এই চেয়ারম্যান বলেন,বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনা রাষ্ট্র ক্ষমতায় থাকার সুবাদে তারই একান্ত আস্থাভাজন আওয়ামী লীগের দুর্দিনের কান্ডারী প্রয়াত এমপি আব্দুল মান্নানের প্রচেষ্টায় মধুপুর ইউনিয়নে দৃশ্যমান ব্যাপক উন্নয় সাধিত হয়েছে। বর্তমান এমপি সাহাদারা মান্নানের একান্ত চেষ্টায় উন্নয়ন কাজ এখনও চলমান রয়েছে। তিনি আরও জানান, যতদিন এলাকার জনপ্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্বে থাকবো, এলাকার সার্বিক উন্নয়নে নিবেদিত হয়ে কাজ করে যাবো ।

শেয়ারকরুন: